বাচ্চাদের সুগার হলে এই লক্ষণগুলো দেখা যায় / diabetes symptoms in children | Ayurvedic-Care |

বাচ্চাদের সুগার হলে এই লক্ষণগুলো দেখা যায় / diabetes symptoms in children :



Diabetes symptoms

ডায়াবেটিস বা মধুমেহ এক প্রকার ভয়ংকর অসুখ যেটা সম্পূর্ণ শরীরকে ভিতর থেকে নষ্ট করে দেয়। আজকাল প্রাপ্ত বয়স্কদের ডায়াবেটিস যেমন ক্রমশ বেড়েই চলেছে, তেমনি অল্প বয়স্ক শিশুদের মধ্যেও এই ধরনের রোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। যদি আপনার বাচ্চার ঘনঘন তেষ্টা পায়, খিদে বেড়ে যায় অথবা বারবার পেচ্ছাপ করার ইচ্ছে হয় তাহলে কিন্তু এটা সাধারণ নয়। মধুমেহ বা ডায়াবেটিস রোগ এতটাই অধিক ঘাতক হতে পারে যে এতে শিশুর চোখ এবং কিডনি সাংঘাতিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

তিন প্রকার ডায়াবেটিস / Types of diabetes :

টাইপ 1 ডায়াবেটিস / type 1 Diabetes :


টাইপ 1 ডায়াবেটিস হলে রোগীর শরীরে ইনসুলিন তৈরি হয় না, যার ফলে ইনসুলিনের ঘাটতির শরীরে এবং এই প্রকার টাইপ 1 ডায়াবেটিস রোগীকে সারা জীবন ইন্সুলিন ইঞ্জেকশন বাইরে থেকে নিতে হয়।


টাইপ টু ডায়াবেটিস / type 2 diabetes :


এই প্রকার ডায়াবেটিসে রোগীর শরীরে ইনসুলিন উৎপাদন হয়, কিন্তু তা যথেষ্ট নয় এবং শরীরের জন্য সম্পূর্ণভাবে প্রয়োজনীয়তা মেটাতে পারেনা। ডায়াবেটিসের যত রোগী আছে তার মধ্যে 90% রোগী হলো টাইপ টু ডায়াবেটিস। ডায়াবেটিস কন্ট্রোল করা যায়, এর উপসর্গ বা লক্ষণগুলো কম করার জন্য শরীরের ওজন কম করতে হয়, রেগুলার ব্যায়াম করা দরকার, হেলদি ডায়েট গ্রহণ করা উচিত এবং রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়মিত মনিটর করা উচিত। যাদের শরীরের ওজন অধিক তারা এই ধরনের টাইপ টু ডায়াবেটিস এ আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা অনেক বেশি।


গর্ভাবস্থায় মধুমেহ / gestational diabetes :


এই রোগে আক্রান্ত হন সাধারনত গর্ভবতী মহিলারা। এই মহিলারা যাদের রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা অধিক হয়, কিন্তু শরীরে উৎপন্ন হওয়া ইনসুলিন এতটা অল্প হয় যে তাকে ঠিক করার জন্য এই পরিস্থিতিতে চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে থাকতে হয় এবং হেলদি ডায়েট ও এক্সারসাইজের মাধ্যমে কন্ট্রোল করা যেতে পারে। অত্যাধিক ফ্যাট যুক্ত ভোজন, অ্যানিমেল ফ্যাট যুক্ত খাবার খেলে সমস্যা অধিক বেড়ে যায়।



আজকে আমরা জেনে নেব যে শিশুদের সুগার বা মধুমেয় হলে তার প্রাথমিক লক্ষণগুলো কি কি / diabetes symptoms in children :


অধিক তেষ্টা পাওয়া -


যখন শিশুদের শরীরে সুগার লেভেল বেড়ে যায় তখন শিশুদের অত্যাধিক তৃষ্ণা পায়। ওরা তখন জল পান করা ছাড়াও জুস কোল্ড ড্রিংকস ইত্যাদি তরল পদার্থ বারবার পান করার চেষ্টা করে। যদি আপনার বাচ্চার মধ্যে হঠাৎ অতিরিক্ত তেষ্টা পায় অর্থাৎ ঘনঘন জল পান করার প্রবণতা বাড়ে তাহলে চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।


বারবার পেচ্ছাব হওয়া -


বারবার পেচ্ছাব হওয়ার সমস্যা ডায়াবেটিস এর একটি সাধারণ লক্ষণ, যেটা প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যেও দেখা যায়। যখন শিশুর তেষ্টা বেড়ে যায় এবং অধিক তরল পদার্থ পান করতে থাকে, তখন বারবার পেচ্ছাপ করতে হতে পারে। আবার যদি বাচ্চার মধ্যে এই সমস্ত লক্ষণ দেখা যায় তাহলে সাবধান হয়ে যাওয়া উচিত। এই লক্ষন ডায়াবেটিসের বা সুগারের প্রাথমিক লক্ষণ হতে পারে।


খিদে বেড়ে যাওয়া -


শিশুদের যদি ডায়াবেটিস এর সমস্যা হয় তাহলে সাধারণত তাদের খিদে বেড়ে যায়। এটা এই কারণে হয় যে তাদের মধ্যে প্রয়োজনীয় এনার্জি কম হয়ে যায়, এই কমতি পূরণ করার জন্য বাচ্চার শরীরে আরো বেশি পরিমাণে খাবার চাহিদা বেড়ে যায়। ডায়াবেটিসের সমস্যা হলে বাচ্চা যত বেশি পরিমাণে খায় সেই ভাবে তার শরীরের বৃদ্ধি হয় না বরং শরীরের ওজন কমতে থাকে। ডায়াবেটিসে আক্রান্ত শিশুদের এটি একটি সাধারণ লক্ষণ।

শরীরে ক্লান্তি অনুভব হয় -

ডায়াবেটিসে আক্রান্ত বাচ্চারা অন্যান্য সাধারণ শিশুদের মত সক্রিয় হতে পারে না। ইনসুলিনের মাত্রা কমে যাওয়ার কারণে বাচ্চার শরীরে এনার্জি কমে যায়। যার ফলে বাচ্চার শরীরে ঘনঘন ক্লান্তি আসতে পারে এবং বাকি সাধারণ বাচ্চাদের তুলনায় দুর্বল হয়ে পড়ে।

যদি আপনি আপনার বাচ্চার এই ধরনের লক্ষণগুলো প্রাথমিক অবস্থায় বুঝে উঠতে পারেন, তাহলে আপনার বাচ্চা এই সমস্যা থেকে খুব দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে। কারন ডায়াবেটিসের চিকিৎসা প্রাথমিক অবস্থাতে শুরু করলেই সেরে ওঠার সম্ভাবনা অনেক বেশি। ডায়াবেটিস রোগীর কি কি খাওয়া উচিত এবং কি কি খাবার বর্জন করা উচিত, কি কি করা উচিত এগুলো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যদি একবার এই রোগটি প্রাথমিক অবস্থায় বুঝে ওঠা যায় তাহলে এর চিকিৎসা করা সম্ভব।
বাচ্চাদের সুগার হলে এই লক্ষণগুলো দেখা যায় / diabetes symptoms in children | Ayurvedic-Care | বাচ্চাদের সুগার হলে এই লক্ষণগুলো দেখা যায় / diabetes symptoms in children  | Ayurvedic-Care | Reviewed by Ayurvedic-Care on September 28, 2019 Rating: 5

No comments:

Please do not enter any spam link in the comment box.

Powered by Blogger.